রাজশাহীতে সম্ভাব্য প্রার্থীদের ঈদ শুভেচ্ছায় পোস্টারে পোস্টারে মুখরিত

রাজশাহীতে সম্ভাব্য প্রার্থীদের ঈদ শুভেচ্ছায় পোস্টারে পোস্টারে মুখরিত

নাজিম হাসান,রাজশাহী: রাজশাহীতে আগামী জাতীয় নির্বাচনে এমপি প্রার্থী হতে এখন মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন আওয়ামী লীগ ও বিএনপি মনোনয়ন প্রত্যাশীরা। সম্ভাব্য এমপি প্রার্থীদের ঈদ শুভেচ্ছার পোস্টারে পোস্টারে চেয়ে গেছে এলাকা। ক্ষমতাসীন আ”লীগের দুডজন প্রার্থী ঈদ শুভেচ্ছা জানিয়ে সাটিয়েছেন পোস্টার। বেশ কয়েকজন একেবারেই নতুন মুখ।

শোকের মাসে পোস্টার লাগানো নিয়ে রয়েছে ক্ষমতাসীনদের নানা মিশ্র প্রতিক্রিয়া। তবে ঈদুল আযহাকে কেন্দ্র করে পোস্টার লাগানোতে তেমন কোন সমস্য নেই। ঈদ উপলক্ষ্যে শুভেচ্ছা জানাতে পারেন । (তানোর-গোদাগাড়ী) আসনে নতুন মুখ হিসেবে আবির্ভাব ঘটেছে জেলা কৃষকলীগ সাধারন সম্পাদক তাজবুল ইসলাম। তিনি আগস্ট মাসের শুরুতে তানোর গোল্লাপাড়া বাজারস্থ দলীয় অফিসে এমপি প্রার্থী হিসেবে ঘোষনা করেন।

তিনি তানোর গোদাগাড়ী বাসীকে ঈদ উল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়ে উপজেলা জুড়ে আনাচে কানাচে লাগিয়েছেন পোস্টার। আরেক সম্ভাব্য প্রার্থী বর্ষীয়ান আ”লীগ নেতা একে এম আতাউর রহমান খান । তিনি রাজশাহী অঞ্চলের কয়েকজন নেতা কেন্দ্রের সদস্য হয়েছেন তার মধ্যে আতাউর রহমান একজন। তিনি জেলা আ”লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ছিলেন। গোদাগাড়ী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ছিলেন। সাংসদ ফারুক চৌধুরীর সাথে রয়েছে ব্যাপক দুরুত্ত। যার ফলেই তার আবির্ভাব ঘটেছে বলে একাধিক দলীয় সুত্র নিশ্চিত করেছেন ।

২০১৪ সালে জাতীয় নির্বাচন করার লক্ষ্যে বীর মুক্তিযোদ্ধা সাবেক অতিরিক্ত ডিআইজি মতিউর রহমান প্রার্থী হিসেবে ঘোষনা করেছিলেন । তিনি চলতি বছরে তানোরে বেশ কিছু জায়গায় গনসংযোগ করেছিলেন । ঈদ উল আযহা কে সামনে রেখে তানোর গোদাগাড়ী উপজেলা বাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে সাটিয়েছেন পোস্টার। আ”লীগের তিন প্রার্থী পোস্টার লাগালেও আরো দুই প্রার্থী রয়েছেন । তারা হলেন জেলা আ”লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি আইনজীবি মুকবুল খা । নতুন প্রার্থী হিসেবে মুল আলোচনায় রয়েছেন।

তানোর উপজেলা আ”লীগ সভাপতি মুন্ডূমালা পৌর মেয়র গোলাম রাব্বানী। তিনি এমপি ভোট করার ঘোষনা দেয়া মাত্র তাকে ছিটকে ফেলেন সাংসদ ফারুক চৌধুরী।দলীয় সুত্র জানায় তানোরে আ”লীগের প্রান গোলাম রাব্বানী। তিনি দীর্ঘ দিন ধরে স্থানীয় জন প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। চলতি মাসে আন্তর্জাতিক সাহিত্য পরিষদ থেকে সমাজ সেবায় বিশেষ অবদান রাখায় ইন্ধ্রা গান্ধী পুরুস্কার পান । কলকাতায় তাকে দেয়া হয় এ পুরুস্কার।

বিএনপির একক প্রার্থী কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান সাবেক মন্ত্রী ব্যারিস্টার আমিনুল হক । বেগম খালেদা জিয়া লন্ডনে যাবার আগে রাজশাহীর এ আসনটি ঘোষনা করে যান বলে একাধিক নেতারা জানান। তবে আক্রোশ মুলুক ভাবে মুন্ডূমালা পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি মোজাম্মেল হকের ছেলে শাহীন । তিনি যুক্তরাজ্য প্রবাসী । একাধিক নেতারা বলেন ব্যারিস্টার আমিনুল হকের বিকল্প প্রার্থী ভাবা মানেই বোকার রাজ্যে বসবাস তার। তিনি কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান। তিনিই উত্তর বঙ্গের বিভিন্ন আসনের প্রার্থীদের মনোনায়ন দিবেন।

গত ঈদ উল ফিতরে আগমন ঘটে জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমীর অধ্যাপক মুজিবুর রহমান । তিনিও জোট থেকে মনোনায়ন পাবেন জামায়াত নেতাদের ধারনা। বিএনপি আ”লীগের একাধিক নেতারা জানান এ আসনে মুলত ব্যারিস্টার ও চৌধুরীর মধ্যে হবে মুল লড়াই । গত রোববার থেকে ছোট আকারের বিলবোর্ড দেখা গেছে তানোর উপজেলা আ”লীগ সভাপতি মুন্ডূমালা পৌর মেয়র গোলাম রাব্বানীর । তার একান্ত অনুসারীরা জানান মেয়র রাব্বানী এমপি ভোট করতে চাওয়ায় তাকে সাংসদ দূরে ফেলে দিয়েছেন । মেয়র রাব্বনী জানানা আ”লীগ বৃহত্তর রাজনৈতিক দল মনোনায়ন যে কেউ চাইতেই পারে । আমি ভোট করতে চাওয়ায় কোন সভায় ডাকা হয় না । সারা জীবন রাজনীতি করে তার ফল ভোগ করছি। তবে যাকে নৌকা প্রতীক দেয়া হবে তার জন্যই ভোটের মাঠে থাকব । সাংসদ নৌকা পেলে তার ভোট করা হবে । এতে কোন সন্দেহের অবকাশ নেই। আমার রক্তের সাথে মিশে আছে আ”লীগ । তিনি আরো বলেন ২০১৪ সালের নির্বাচনে জননেত্রী শেখ হাসিনার আসনে একাধিক প্রার্থী মনোনায়ন উত্তোলন করেছিলেন। যারা মনোনায়ন তুলেছিলেন তাদের কে নেত্রী ধন্যবাদ জানিয়ে বলেছিলেন আমার আসনে এতো নেতা তৈরী হয়েছে এটা অন্যান্ত ভাল দিক। (তানোর-গোদাগাড়ী) আসনে আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী এবারও থাকছেন শিল্প প্রতিমন্ত্রী ওমর ফারুক চৌধুরী এমপি।

এদিকে পুঠিয়া-দুর্গাপুর আসনে আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে সম্ভাব্য প্রার্থীরা মাঠে নেমে পড়েছেন।তারা সভা-সমাবেশ, গণসংযোগ,পোস্টার,ব্যানার-ফেস্টুন লাগিয়ে শুভেচ্ছা জানিয়ে ফেসবুক-টুইটার ও মতবিনিময়ের মাধ্যমে নিজেদের প্রার্থিতার বিষয়ে জানান দিচ্ছেন। এবার রাজশাহী-৫ পুঠিয়া-দুর্গাপুর আসনে আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রাজনীতিতে চমক আসছে নতুন প্রার্থী দিয়ে। দলের মনোনয়ন পেতে প্রবীণদের পাশাপাশি মাঠে নেমেছেন রাজশাহীর তরুণ নেতৃত্বও। ব্যানার, ফেস্টুন, পোস্টার আর তোরন শোভা পাচ্ছে তাদের নিজ নিজ নির্বাচনী এলাকায়। অন্যদিকে প্রার্থী নিয়ে বিভক্ত হয়ে আছে আওয়ামী লীগ। এ অবস্থায় চাঙ্গা রয়েছেন আওয়ামী লীগের নতুন মুখ হিসেবে আলোচিত সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহসানুল হক মাসুদ।

আর বিএনপির থেকে কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও সাবেক ছাত্রনেতা আবু বকর সিদ্দিক। তৃণমূলের নেতাদের সক্রিয় করে তুলতে সাংগঠনিক তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন এই দুই তরুণ নেতা। ফলে দলের নেতাকর্মীরা ছাড়াও ভোটারদের মাঝেও আলোচনায় এসেছেন তারা।এবারের সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়নপ্রত্যাশী তিনজন। তারা হলেন,পুঠিয়া-দুর্গাপুর আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য রয়েছেন পুঠিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল ওয়াদুদ দারা। সাবেক এমপি তাজুল ইসলাম মোহাম্মদ ফারুক, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহসানুল হক মাসুদ। এবং বিএনপি থেকে মনোনয়নপ্রত্যাশী রাজশাহী জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি নাদিম মোস্তফা। বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও সাবেক ছাত্রনেতা আবু বকর সিদ্দিক,জেলা বিএনপির সহসভাপতি নজরুল ইসলাম মন্ডল।

তারা নির্বাচনী এলাকায় ব্যানার, ফেস্টুন ও পোস্টার সাটানোসহ গণসংযোগ শুরু করে দিয়েছে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়ন পাওয়ার আশায়। আবার অনেকেই এলাকাবাসীসহ স্থানীয় ও কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছে নিজেকে তুলে ধরতে ব্যানার, ফেস্টুন,পোস্টার সাটানো ও তোড়ন নির্মাণ করেছেন। যা ছড়িয়ে দেয়া হয়েছে নিজের ও তাদের সমর্থকদের ফেসবুক পেইজে।

(পবা-মোহনপুর) আসনের সংরক্ষিত আসনের এমপি জিনাতুন নেছা তালুকদার, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ, আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা মোহাম্মাদ আলী সরকার। তবে আরেক মনোনয়ন প্রত্যাশী মোহনপুরের বাসিন্দা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আয়েন উদ্দিন এমপি।

রাজশাহী-৪ (বাগমারা) আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থিতার দৌড়ে এবারও ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক।তাহেরপুর পৌরসভার মেয়র ও পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ। বাগমারা উপজেলা চেয়ারম্যান ও সাধারণ সম্পাদক জাকিরুল ইসলাম সান্টু।দলীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলা আওয়ামী লীগের রাজনীতি এখন দুটি ধারায় বিভক্ত। একটি গ্রুপকে বর্তমান এমপি ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক নিয়ন্ত্রণ করেন। আর আরেকটি গ্রুপের নেতৃত্বে রয়েছেন জাকিরুল ইসলাম সান্টু ও তাহেরপুর পৌর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ। বর্তমানে দুটি গ্রুপের কেউ কাউকে ছেড়ে কথা বলছেন না।

রাজশাহী-৬ (বাঘা-চারঘাট) আসন থেকে আসন্ন একাদশ সংসদ নির্বাচনে আবারো আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী থাকছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এমপি। এলাকায় তার জনপ্রিয়তা আকাশচুম্বি হওয়ায় তিনি এবারো এমপি প্রার্থী হচ্ছেন বলে আভাস পাওয়া যাচ্ছে। এছাড়া সাবেক সংসদ সদস্য ও চারঘাট উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রায়হানুল হক রায়হান, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক এ্যাডভোকেট লায়েব উদ্দিন লাভলু, বাঘা পৌর মেয়র আক্কাছ আলীও এই আসনে মনোয়ন পেতে লোবিয়িং চালিয়ে যাচ্ছেন বলে শোনা যাচ্ছে।#




মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.