ফিরোজা বেগম স্মৃতি স্বর্ণপদক পাচ্ছেন রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা

ফিরোজা বেগম স্মৃতি স্বর্ণপদক পাচ্ছেন রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা

দেশের শীর্ষস্থানীয় বিদ্যাপীঠ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রবর্তিত ‘ফিরোজা বেগম স্মৃতি স্বর্ণপদক ও পুরস্কার-২০১৭’ পাচ্ছেন রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা।

২৭ জুলাই, বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে এ পুরস্কার প্রদান করা হবে।

আয়োজন সম্পৃক্ত সঙ্গীত শিল্পী ও নজরুলসঙ্গীতের কিংবদন্তী ফিরোজা বেগমের শিষ্য সুস্মিতা আনিস জানিয়েছেন, দ্বিতীয়বারের মত এ পুরস্কার দেয়া হচ্ছে। প্রথমবার ২০১৬ সালে শিল্পী সাবিনা ইয়াসমিন ফিরোজা বেগম স্বর্ণপদক অর্জন করেছিলেন। এবার পাচ্ছেন শিল্পী রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা।

তিনি আরো জানান, এটা অত্যন্ত আনন্দের এবং ভালো লাগার যে, ফিরোজা বেগম স্বর্ণপদকের জন্য রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা নির্বাচিত হয়েছেন।

সুস্মিতা আনিস জানান, ফিরোজা বেগম তার সঙ্গীত- অবদানের জন্যই বাংলা গানের শ্রোতাদের মনের মনিকোঠায় থাকবেন। তবুও তার জন্মদিন ঘিরে তাকে আনুষ্ঠানিকভাবে স্মরণ করার একটা উপলক্ষ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় তৈরি করেছে। এটা অত্যন্ত সম্মানের।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে স্বর্ণপদক ও পুরস্কারের অর্থ মূল্যের চেক তুলে দেবেন।

রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃত্যকলা বিভাগের চেয়ারপার্সন। ১৯৯২ সালে তিনি সংগীত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ‘সুরের ধারা’ প্রতিষ্ঠান করেন।

বাংলা ভাষাভাষি গানের শ্রোতাদের কাছে রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী হিসাবে জনপ্রিয়তার র্শীষে থাকা রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা পুরস্কারপ্রাপ্তির অনুভূতি জানিয়ে বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এ পুরস্কার অসম্ভব সম্মানের। ফিরোজা বেগম একজন গুণী ব্যক্তিত্ব ছিলেন। নজরুলসংগীতে তার অবদান অনন্য। তার নামের এই পদক পেয়ে নিজেকে খুব সম্মানিত মনে করছি।

নজরুল সংগীত শিল্পী ফিরোজা বেগম ১৯৩০ সালের ২৮ জুলাই বৃহত্তর ফরিদপুর জেলায় জন্মগ্রহণ করেন এবং ২০১৪ সালের ৯ সেপ্টেম্বর ঢাকায় ৮৪ বছর বয়সে ইন্তেকাল করেন। ২০১৬ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এসিআই ফাউন্ডেশনের সহায়তায় তৈরি করে ‘ফিরোজা বেগম স্মৃতি স্বর্ণপদক ট্রাস্ট ফান্ড’।

ফিরোজা বেগম ট্রাস্ট ফান্ড থেকে খ্যাতিমান শিল্পী ছাড়াও প্রতিবছর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সংগীত বিভাগের সর্বোচ্চ সিজিপিএ প্রাপ্ত একজন শিক্ষার্থীকে স্বর্ণপদক ও নগদ ২০ হাজার টাকার চেক দেয়া হয়।




মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.