বেতন-ভাতার দাবিতে মৌলভীবাজার পৌরসভা কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মবিরতি পালন

বেতন-ভাতার দাবিতে মৌলভীবাজার পৌরসভা কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মবিরতি পালন

সরকারি কোষাগার থেকে বেতন-ভাতা ও পেনশন দেওয়ার দাবিতে মৌলভীবাজার পৌরসভার কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা র্অধদিবস কর্মবিরতি পালন করছে।

সোমবার (২৪ জুলাই) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত এ কর্মবিরতি পালন করা হয়।

এ সময় কর্মকর্তা কর্মচারিদের দাবির সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন,পৌরসভার মেয়র মো: ফজলুর রহমান,কাউন্সিলর মনবির রায় মন্জু,কাউন্সিলর মো: ফয়সল আহমদ,কাউন্সিলর জালাল আহমদ অংশ নেন।

অন্যানের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, মৌলভীবাজার পৌরসভার সচিব এম আমিনুল ইসলাম, নিবার্হী প্রকৌশলী আবুল হোসেন খাঁন,পৌরসভা কর্মকর্তা কর্মচারী এসোসিয়েশনের বিভাগীয় সভাপতি সৈয়দ নকিবুর রহমান, সহ সভাপতি এ কে এম নুরুজ্জামান,সহ সাংগঠনিক সম্পাদক রুমেল আহমদ,উপ সম্পাদক রনধীর রায়, মহিলা সম্পাদিকা কল্যানি সরকার, জেলা সাধারণ সম্পাদক মো: আব্দুল মতিন,সহ সভাপতি সরমিলা দেব প্রমুখ।

বক্তরা বলেন,স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের অধীনে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর, জনস্বাস্থ্য অধিদপ্তর, ওয়াসা, সমবায় অধিদপ্তর সহ অনেক প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারী সরকারের রাজস্ব তহবিল থেকে বেতন-ভাতা সহ পেনশন সুবিধা পেয়ে থাকেন। অথচ জনসেবকের মূল দায়িত্ব পালনকারী সংস্থা স্থানীয় সরকারের মূল প্রতিষ্ঠান পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা ও আনুতোষিক পৌরসভার রাজস্ব তাহবিল থেকে প্রদান করা হয়ে থাকে। ফলে দেশের অনেক পৌরসভায় বেতন-ভাতা অনিয়মিত। পৌরসভা কর্মকর্তা-কর্মচারীদের চাকুরী থেকে অবসরগ্রহনের পর আনুতোষিক সহ অন্যান্য আর্থিক সুবিধা থেকে বঞ্চিত হয়ে পরিবার পরিজন নিয়ে অসহায় ও মানবেতন জীবন যাপন করছে। এতে আধুনিক নগরায়নে ও ডিজিটাল দেশ গঠণের অংশীদার প্রায় ২০ থেকে ২৫ হাজার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা বৈষম্যের শিকার হচ্ছে। পাশাপাশি একটি জনগুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠান হওয়া সত্বেও জনগণের নিকট থেকে উন্নয়ন ও সেবায় গৃহীত কর ও অর্থ হতে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা পরিশোধ করার পর জনগণের সেবা প্রদান সহ পৌর এলাকার উন্নয়ন স্থানীয় কর্তৃপক্ষের দ্বারা ত্বরান্বিত করা অধিকাংশ পৌরসভার ক্ষেত্রে সম্ভব হচ্ছে না