জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রদান করলেন প্রধানমন্ত্রী

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রদান করলেন প্রধানমন্ত্রী

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০১৫ এর বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার বিকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এক জমকালো অনুষ্ঠানে তিনি পুরষ্কার তুলে দেন।

২০১৫ সালে চলচ্চিত্রের সেরা অভিনেতা হিসেবে যৌথভাবে পুরস্কার জিতেছেন শাকিব খান ও মাহফুজ আহমেদ।

‘আরো ভালোবাসবো তোমায়’ চলচ্চিত্রের জন্য শাকিব খান ও ‘জিরো ডিগ্রি’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য মাহফুজ আহমেদ এ পুরস্কার পেয়েছেন।

এছাড়াও ‘জিরো ডিগ্রি’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী হিসেবে জয়া আহসান এককভাবে এ পুরস্কার লাভ করেন।

এবার যুগ্মভাবে আজীবন সম্মাননা দেয়া হয়েছে শাবানা ও ফেরদৌসি রহমানকে।

অন্যান্য ক্যাটাগরিতে পুরস্কার পেয়েছেন শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র যুগ্মভাবে বাপজানের বায়োস্কোপ ও অনিল বাগচীর একদিন, শ্রেষ্ঠ প্রামাণ্য চলচ্চিত্র একাত্তরের গণহত্যা ও বধ্যভূমি, শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র পরিচালক যুগ্মভাবে মো. রিয়াজুল মওলা রিজু (বাপজানের বায়োস্কোপ) ও মোরশেদুল ইসলাম (অনিল বাগচীর একদিন), শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা গাজী রাকায়েত (অনিল বাগচীর একদিন), শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী তমা মির্জা (নদীজন), শ্রেষ্ঠ খল অভিনেতা ইরেশ যাকের (ছুঁয়ে দিল মন), শ্রেষ্ঠ শিশু শিল্পী যারা যারিব (প্রার্থনা), শিশু শিল্পী শাখায় বিশেষ পুরস্কার প্রমিয়া রহমান (প্রার্থনা), শ্রেষ্ঠ সঙ্গীত পরিচালক সানী জুবায়ের (অনিল বাগচীর একদিন), শ্রেষ্ঠ গায়ক যুগ্মভাবে সুবীর নন্দী (মহুয়া সুন্দরী) ও এসআই টুটুল (বাপজানের বায়োস্কোপ), শ্রেষ্ঠ গায়িকা প্রিয়াংকা গোপ (অনিল বাগচীর একদিন), শ্রেষ্ঠ গীতিকার আমিরুল ইসলাম (বাপজানের বায়োস্কোপ), শ্রেষ্ঠ সুরকার এসআই টুটুল (বাপজানের বায়োস্কোপ), শ্রেষ্ঠ কাহিনীকার মাসুম রেজা (বাপজানের বায়োস্কোপ), শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্যকার যুগ্মভাবে মাসুম রেজা (বাপজানের বায়োস্কোপ) ও মো. রিয়াজুল মওলা রিজু (বাপজানের বায়োস্কোপ), শ্রেষ্ঠ সংলাপ রচয়িতা হুমায়ূন আহমেদ (অনিল বাগচীর একদিন), শ্রেষ্ঠ সম্পাদক মেহেদী রনি (বাপজানের বায়োস্কোপ), শ্রেষ্ঠ শিল্প নির্দেশক সামুরাই মারুফ (জিরো ডিগ্রি), শ্রেষ্ঠ চিত্রগ্রাহক মাহফুজুর রহমান খান (পদ্ম পাতার জল), শ্রেষ্ঠ শব্দগ্রাহক রতন কুমার পাল (জিরো ডিগ্রি), শ্রেষ্ঠ পোশাক ও সাজসজ্জাকার মসকান সুমাইকা (পদ্ম পাতার জল) এবং শ্রেষ্ঠ মেক-আপম্যান শফিক (জালালের গল্প)।