ঘুমে ব্যাঘাত ঘটায় বাবাকে হত্যা

ঘুমে ব্যাঘাত ঘটায় বাবাকে হত্যা

অনলাইন ডেস্ক : ঘুমে ব্যাঘাত ঘটনায় বাবাকে হত্যা করেছে পুত্র। ফরিদপুরের সালথা উপজেলার আটঘর ইউনিয়নের নকুলহাটি গ্রামে এ নিমর্ম হত্যার ঘটনা ঘটে। মঙ্গবার রাত আড়াইটার দিকে ছেলের হাতে খুন বাবা ওয়াহেদ মোল্লা (৭৫)। পাষণ্ড ছেলের নাম কালু মোল্লা (২৮)। বাবা ওয়াহেদকে খুন করার অভিযোগে গতকাল রাতেই ছেলে কালুকে আটক করেছে পুলিশ। ওয়াহেদের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।
এলাকাবাসী জানায়, ওয়াহেদ মোল্লা ভিক্ষা করে জীবিকা নির্বাহ করতেন। তাঁর ছেলে কালু মাদকাসক্ত ছিল। সে মাদকদ্রব্য বিক্রির সঙ্গেও জড়িত। ঘটনার রাতে বাবা-ছেলে এক ঘরেই ঘুমিয়ে ছিলেন। গভীর রাতে গোঙানির শব্দ শুনে প্রতিবেশিরা ওয়াহেদের ঘরে এসে তাঁকে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে। তাঁর গলায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করার চিহ্ন দেখে তারা। এ অবস্থা দেখে প্রতিবেশীরা পুলিশকে খবর দেয়।
সালথা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেলোয়ার হোসেন বলেন, কালুকে প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে বাবাকে হত্যার কথা স্বীকার করেছে।
কালুর দেওয়া তথ্যের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার রাতে বৃদ্ধ ওয়াহেদ তিন-চারবার শৌচাগারে যান। এতে কালুর ঘুমের ব্যাঘাত ঘটে। একপর্যায়ে কালু বাবার ওপর প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ হয়। বাবা ওয়াহেদের গলা টিপে ধরে সে। এরপর তার বাবার গলায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে পোচ দেয়। এতে কিছুক্ষণের মধ্যেই ওয়াহেদ মারা যান। এ হত্যার ঘটনায় আজ বুধবার সকাল নাগাদ মামলা হয়নি। মামলা করার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।




মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.