অপেক্ষা শেষে বিপাশা কবির

অপেক্ষা শেষে বিপাশা কবির

বিনোদন প্রতিবেদক : চলচ্চিত্রে ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে আইটেম গার্ল হিসেবে কাজ করলেও সেই ইমেজ ভেঙেছেন বিপাশা কবির। এখন নায়িকা চরিত্রের বাইরে তিনি কাজ করেন না। আজ মুক্তি পাচ্ছে বিপাশা অভিনীত নতুন ছবি ‘পাষাণ’। চলচ্চিত্রটিতে তিনি যখন অভিনয় শুরু করেন, তখন থেকেই এটির মুক্তির অপেক্ষায় ছিলেন। কারণ বিপাশা মনে করেন, এটি তার অভিনয় জীবনের অন্যতম সেরা একটি চলচ্চিত্র। এতে অভিনয়ের ব্যাপারে বিপাশার সহজ সরল স্বীকারোক্তি ছিলো এমন যে, এই চলচ্চিত্রে তিনি সেকেন্ড হিরোইনের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। কিন্তু তার চরিত্রটি খুব গুরুত্বপূর্ণ। এই ছবিতে বিপাশার পর্দা উপস্থিতি দর্শকদের মুগ্ধ করবে বলে মনে করেন বিপাশা। তিনি বলেন, ‘পাষাণ চলচ্চিত্রে আমি মিশা ভাইয়ের ছোট বোনের চরিত্রে অভিনয় করেছি, যে ভীষণ রাগী আর জেদী একটি মেয়ে। যা চায় তা-ই তাকে দিতে হয়। একসময় ওমের ভালোবাসার জন্য সে পাগল হয়ে যায়। এগিয়ে যায় গল্প। সৈকত নাসির ভাইয়ের নির্দেশনায় আমি আমার চরিত্রটি যথাযথভাবে ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করেছি। আশা করছি আমার অভিনয় দর্শক আগ্রহ নিয়ে উপভোগ করবেন।’ ‘পাষাণ’ চলচ্চিত্রে বিপাশার লিপে দর্শক ‘পাষাণ পাষাণ বন্ধু আমারই পাষাণ’ গানটিও উপভোগ করবেন বলে জানান বিপাশা কবির। আজ দেশের ১০৬টি প্রেক্ষাগৃহে ছবিটি দেখা যাবে। এটি নায়িকা হিসেবে বিপাশা কবিরের ষষ্ঠ চলচ্চিত্র। তার অভিনীত মুক্তিপ্রাপ্ত সর্বশেষ চলচ্চিত্র ‘খাস জমিন’। এতে নায়িকার বিপরীতে ছিলেন সাইমন সাদিক। একজন নায়িকা হিসেবে বিপাশা কবিরের মুক্তিপ্রাপ্ত প্রথম চলচ্চিত্র ছিলো সায়মন তারিকের ‘গুণ্ডামি’। এরপর তাকে নায়িকা হিসেবে আরো দেখা গেছে শাহেদ চৌধুরীর ‘আড়াল’, সোহেল বাবুর ‘বাজে ছেলে দ্য লোফার’ এবং সায়মন তারিকের ‘ক্রাইম রোড’ চলচ্চিত্রে। বিপাশা জানিয়েছেন, নায়িকা চরিত্রের বাইরে আর কোনো চলচ্চিত্রে তিনি অভিনয় করবেন না। মিডিয়াতে বিপাশা কবিরের যাত্রা শুরু একজন লাক্স তারকা হিসেবে ২০০৯ সালে।